বাংলাদেশ তৈরি হচ্ছে করোনা ভাইরাস পরীক্ষামূলক ভাবে কিটের তৈরি

বৈশ্বিক মহামারীতে রূপ নেওয়া নভেল করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে বাংলাদেশ এখন আমদানি করা কিটের উপর নির্ভর করছে। এর মধ্যেই দেশীয় প্রতিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য ফার্মাসিউটিক্যালসের প্রধান বিজ্ঞানী বিজন কুমার শীল কোভিড-১৯ রোগ শনাক্তে কিট উদ্ভাবনের কথা জানান।

গত ১৯ মার্চ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর থেকে করোনাভাইরাসের কিট উৎপাদনের অনুমতি পায়। গত সাপ্তাহে চীন থেকে কাঁচামাল (রি-এজেন্ট) আসার পরপরই কিটের নমুনা তৈরির কাজ শুরু করে তারা।
বিজ্ঞানী বিজন কুমার শীলের নেতৃত্বে এই কাজে যুক্ত রয়েছেন নিহাদ আদনান, মোহাম্মদ রাঈদ জমির উদ্দিন ও ফিরোজ আহমেদ।
‘র‌্যাপিড ডট ব্লট’ নামের এই পদ্ধতি করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য খরচ তিনশ থেকে সাড়ে তিনশ টাকায় হবে বলে জানিয়েছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র।
তবে শুধু যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজেস কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের (সিডিসি) প্রতিনিধির কোছে কিটের নমুনা তুলে দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

সরকারের কোনো প্রতিনিধি না আসার বিষয়ে জানতে চাইলে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি জাফরুল্লাহ চৌধুরী জানিয়েছে: কাল হঠাৎ আমাদেরকে ঔষধ প্রশাসনের উনারা জানাল যে, উনারা আজকে আসতে পারবেন না। বিএমআরসির চেয়ারম্যান সাহেবকে অনুরোধ করেছিলাম, উনি ফোন করে আমাকে জানিয়েছেন উনি অসুস্থ, আসতে পারবেন না। আমরা আর্মি প্যাথলজি ল্যাবরেটরিকেও আমন্ত্রণ জানিয়েছিলাম, অনুমতি পায়নি বলে আসতে পারবে না বলে জানিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LANGUAGES »