একটি ভ্যাকসিন প্রস্তুত করতে কতো সময়ের প্রয়োজন?

একটি ভ্যাকসিন প্রস্তুত করতে কতো সময়ের প্রয়োজন? আসুন দেখে নিই বিগত ৫০ বছরের পরিসংখ্যান –

১। জিকা ভাইরাস
প্রথম শনাক্ত = ১৯৪৭ সাল।
ভ্যাকসিন আবিষ্কার = গবেষণারত।
সময়কাল = ৭৩ বছর গড়িয়ে গেছে,Result Zero.

২। চিকেনপক্স
প্রথম শনাক্ত = ১৯৫৩ সাল।
ভ্যাকসিন আবিষ্কার = ১৯৯৫ সাল।
সময়কাল = ৪২ বছর।

৩। হেপাটাইটিস বি ভাইরাস
প্রথম শনাক্ত = ১৯৬৫ সাল।
ভ্যাকসিন আবিষ্কার = ১৯৮১ সাল।
সময়কাল = ১৬ বছর।

৪। ইবোলা ভাইরাস
প্রথম শনাক্ত = ১৯৭৬ সাল।
ভ্যাকসিন আবিষ্কার = ২০১৯ সাল।
সময়কাল = ৪৩ বছর।

৫। এইডস
প্রথম শনাক্ত = ১৯৮১ সাল।
ভ্যাকসিন আবিষ্কার = গবেষণারত।
সময়কাল = ৩৯ বছর গড়িয়েছে, Result Zero..

৬। সার্স ভাইরাস
প্রথম সনাক্ত = ২০০৩ সাল।
ভ্যাকসিন আবিষ্কার = গবেষণা ক্যানসেলড করা হয়েছে।
সময়কাল = ১৭ বছর।

৭। মার্স ভাইরাস
প্রথম সনাক্ত = ২০১২ সাল।
ভ্যাকসিন আবিষ্কার = গবেষণারত।
সময়কাল = ৮ বছর গড়িয়েছে, Result Zero.

৮।কোভিড-১৯ (করোনাভাইরাস)
প্রথম সনাক্ত = ২০১৯ (ডিসেম্বর)
ভ্যাকসিন আবিষ্কার = গবেষণারত
সময়কাল = চিন্তা করতে থাকুন..

পৃথিবী সৃষ্টির পর থেকে আজ অবধি যতো ভাইরাস আক্রমন করেছে তার মধ্যে সবচেয়ে ছোয়াচে ভাইরাস এই (Covid 19) করোনা ভাইরাস। একটি ভ্যাকসিন ডেভেলপ করতে সচরাচর ৮ থেকে ২০ বছর সময়ের প্রয়োজন।

আর সেখানে কয়েক ঘন্টা পরপর ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়েছে বলে ফেসবুকের নিউজফিড ফ্লাড করবেন না বাংলাদেশ এখন ৩য় স্টেজ এ অবস্থান করছে।অতএব কমিউনিটি ট্রান্সমিশন শুরু হয়ে গেছে।

এখনই যদি সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা না হয়,কাশি শিষ্টাচার,খাদ্যাভাসে পরিবর্তন, বার বার হাত ধৌতকরণ,এইগুলো না মানা হলে ৪র্থ স্টেজে পৌঁছাতে আর বেশি সময় লাগবে না। তখন চারিদিকে থাকবে শুধু হাহাকার,লাশ নিয়ে যাওয়ার কোনো লোক খুঁজে পাওয়া যাবে না। আসুন সচেতন হই।নিজে বাঁচি,পরিবার ও দেশকে বাঁচাই।

সূত্র:গুগল

বিঃ দ্রঃ~যারা লকডাউন খুলছে না কেনো বলে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন তারা একটু ভাবুন যে আরও কিছুদিন লকডাউন থাকা ভালো,নাকি এখনি লকডাউন উঠিয়ে দিয়ে কবর বা শ্মশানে তাড়াতাড়ি পৌঁছানো ভালো?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *