অজু করতে গিয়ে ধর্ষেণের শিকার মাদ্রাসা ছাত্রী

মুন্সীগঞ্জের মোল্লাকান্দী ইউনিয়নের নোয়াদ্দা ঢালি কান্দীর এক দিনমজুরের মেয়ে এবং পুরাডিসি মহিলা মাদরাসার ছাত্রী। অভিযুক্ত একই গ্রামের ওমর গাজীর ছেলে তাজির গাজী (৪০)। ঘটনার শিকার শিশুটিকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
জানা যায়, মেয়েটি গতরাতে ওজু করতে ঘর থেকে বের হয়। দরজার সামনে থেকে ওজুরত অবস্থায় তার মুখে গামছা পেচিয়ে তুলে নিয়ে নিজ বাড়িতে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত তাজির গাজী।
খবর নিয়ে জানা গেছে, এই ঘটনার সময় লম্পট তাজির গাজীর বাড়িতে তার স্ত্রী ছিলেন না। ঘটনার পরে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। বিষয়টি চাপা দেয়ার জন্য স্থানীয় মাতাব্বরা তাদের আটকে রাখে। মোটা অঙ্কের টাকা দিয়ে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে তারা।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আনিচুর রহমান শনিবার দুপুরে জানান, ভিকটিমের পরিবার থানায় এসেছে। অভিযোগ হচ্ছে। মামলা শেষে আসামি তাজিলকে গ্রেফতারে পুলিশী অভিযান চলবে।
এদিকে মেয়েটির বাবার আকুল আবেদন, আমার মেয়েকে বাঁচান। অর্থ না থাকুক। কিন্তু দরদী মানুষ সমাজে আজো আছে। আমার মেয়ে মুন্সীগঞ্জ সদর হাসপাতালের বেডে কাতরাচ্ছে। অভিযুক্তের দ্রুত বিচারের দাবি জানান এই বাবা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *